শুক্রবার, আগস্ট ১৮, ২০১৭
হোম > বিষয়ভিত্তিক সংবাদ > সাংবাদিকদের সুরক্ষায় মানবাধিকার কমিশনকে এগিয়ে আসার আহ্বান

সাংবাদিকদের সুরক্ষায় মানবাধিকার কমিশনকে এগিয়ে আসার আহ্বান

সাংবাদিকদের সুরক্ষায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন আর্টিকেল ১৯ বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়ার পরিচালক তাহমিনা রহমান। প্রধান আলোচক হিসেবে ১৯৯৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত ৫১ জন সাংবাদিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কর্মীদের হত্যার চিত্র তুলে ধরে তিনি এ আহ্বান জানান। বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাষ্ট) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরসি মজুমদার অডিটোরিয়ামে গত ৬ মার্চ ‘মত প্রকাশের স্বাধীনতার সুরক্ষা’ শীর্ষক এই সেমিনার আয়োজন করে।

তাহমিনা রহমান বলেন, ৫১ জন সাংবাদিক ও অনলাইন অ্যাকটিভিস্ট হত্যার মধ্যে কেবল দুইটি হত্যার বিচার হয়েছে নিন্ম আদালতে। অন্যদিকে বেশিরভাগ মামলাই এখনো তদন্ত পর্যায়ে রয়েছে। যার মধ্যে ১৫-২০ বছরের পুরনো হত্যা মামলাও রয়েছে। আন্তর্জাতিক নারী দিবসকে সামনে রেখে সাংবাদিক রুনি ও সাগর দম্পতি হত্যার ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার দাবিও জানান তিনি । দীর্ঘ পাঁচ বছর পেরিয়ে গেলেও সাগর-রুনির হত্যাকান্ডের চার্জশীট হয়নি আজও, বলেন তিনি।

এ সময় বাংলাদশে নারী সংবাদকর্মীদের কর্মক্ষেত্রে কাজের পরিবেশ ও তাদের অধিকার রক্ষার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন। তাহমিনা রহমান বলনে,বাংলাদেশে বর্তমানে ৩৪৫টি সংবাদ পত্র, ৭৫টি অনলাইন সংবাদ পত্র, ২২টি এফএম রেডিও, ২৯টি চলমান টেলিভিশন চ্যানেল রয়েছে, যার মধ্যে একটি বিশাল অংশ জুড়ে রয়েছে নারী সংবাদকর্মী। নারী সংবাদকর্মীরা ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় তুলনামূলকভাবে ভাল অবস্থানে আছেন। তবে দেশের পত্রিকাগুলোতে নারীকর্মীদের অধিকার লংঙ্ঘিত হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এ সেমিনারে সকলকে বিদ্যমান বাক স্বাধীনতা এবং সংশ্লিষ্ট আইনের ব্যাপারে সচতেন হয়ে কাজ করার আহবান জানান এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে কিছু সংস্কার আনার বিষয়েও সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

ব্লাষ্টের অবৈতনিক নির্বাহী পরিচালক ব্যারিস্টার সারা হোসেনের সঞ্চালনায় সেমিনারটিতে সভাপতিত্ব করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জেড আই খান পান্না।

এহতেশাম ইমাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *